চকরিয়ায় সম্পত্তির লোভে বৃদ্ধকে হত্যার অভিযোগ, স্ত্রী-সন্তান আটক

চকরিয়া প্রতিনিধিঃ

কক্সবাজারের চকরিয়ায় আলতাফ হোসেন (৬০) নামের এক কৃষকের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তাকে গলাটিপে হত্যা করার অভিযোগ উঠায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশ হেফাজতে নেয়া হয়েছে তার স্ত্রী ও এক ছেলেকে ।

বুধবার (২২ জুলাই) ভোররাতে উপজেলার বরইতলী ইউনিয়নের ৭নম্বর ওয়ার্ডের বিবিরখিল সবুজবাগ এলাকায় ঘটনাটি ঘটেছে। এ ঘটনার সাথে জড়িত অভিযোগে আটককৃতরা হলেন- নিহত আলতাফ হোসেনের স্ত্রী রহিমা খাতুন ও ছেলে মো.মামুন।

বরইতলী ইউনিয়নের ইউপি সদস্য আব্দু শুক্কুর বলেন, ‘নিহত আলতাফ হোসেন একজন কৃষক। তার এক স্ত্রী, চার ছেলে ও তিন মেয়ে রয়েছে। ছেলেদের মধ্যে এক ছেলেকে বিদেশ পাঠিয়েছেন। আর তিন ছেলে বাড়িতে থাকত। আর মেয়েদের মধ্যে দুই মেয়েকে বিয়ে দিয়েছেন এবং এক মেয়ের এখনো বিয়ে হয়নি।’

তিনি আরো বলেন, ‘মৃত্যুর আগ পর্যন্ত তিনি পরিশ্রম করে বেশ কিছু সম্পদের ( জমি সহ) মালিক হয়েছেন। পাশাপাশি তার গরু-ছাগলও রয়েছে যথেষ্ট। সেই সম্পদ বিলাসিতায় উড়াতে বৃদ্ধ কৃষক আলতাফকে গলাটিপে হত্যার অভিযোগ উঠে স্ত্রী – সন্তানের বিরুদ্ধে।’

হারবাং পুলিশ ফাঁড়ির এএসআই পলাশ রায় বলেন, ‘ঘটনার খবর পাওয়ার পর নিহতের বাড়িতে যাই। এসময় আলতাফ হোসেনের মরদেহ মাটিতে পড়ে থাকতে দেখি। প্রাথমিক সুরতহাল রিপোর্টে তার গলায় আঘাতের চিহৃ পাওয়া গেছে।’

এঘটনায় জড়িত অভিযোগে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য স্ত্রী ও তার এক ছেলেকে আটক করা হয়েছে। বাকিরা পালিয়ে যাওয়ায় তাদের আটক করা যায়নি।

চকরিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো.হাবিবুর রহমান বলেন, ‘আমি ঘটনাস্থলে রয়েছি। মরদেহ ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পেলে বলা যাবে কিভাবে মারা গেছে কৃষক আলতাফ। এরপরও অভিযোগ উঠায় জিজ্ঞাসাবাদ করতে স্ত্রী ও এক ছেলেকে হেফাজতে নেয়া হয়েছে।’