রামুতে রাতের আধারে খামার ঘর ভাংচুর ও লুটপাট

রামু প্রতিনিধিঃ

রামুতে রাতের আধারে খামার ঘর ভাংচুর ও লুটপাটের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ১৪ সেপ্টেম্বর রাত আনুমানিক ৩টায় রামুর কাউয়ারখোপের উখিয়ারঘোনায় এ ঘটনা ঘটে। এব্যাপারে ভুক্তভোগী আল মামুন সিদ্দিকী বাহাদুর ভুমিদস্যুদের বিরুদ্ধে রামু থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন।

জায়গার মালিক আল মামুন সিদ্দিকী বাহাদুর ও অভিযোগসুত্রে জানা যায়, উখিয়ারঘোনা মৈাজায় পৈত্রিক সুত্রে প্রাপ্ত নিজ দখলীয় একটি জমি দীর্ঘদিন ধরে জোর পূর্বক জবর দখলের পায়তারা করে আসছিল একই এলাকার মৃত হাজ্বী গোলামবারীর পুত্র আমানত উল্লাহ,রফিকুল ইসলাম,আমানত উল্লাহর পুত্র মাস্টার আতিকুর রহমান,মৃত আব্দুস সোবাহানের পুত্র আবুল হোছেন ও মৃত আবদুল কাদেরের পুত্র নজির আহমদ নজু। উক্ত জমি নিয়ে অনেকবার শালিশ বিচার হলেও বিবাদীরা উপযুক্ত দালিলিক কাগজপত্র উপস্থাপনে ব্যর্থ হয়।এবং তারা বিচার শালিশকে অগ্রাহ্য করে।
পরে এ নিয়ে আদালতে ১৪৪ ধারার আবেদন করলে বিজ্ঞ আদালত রামু সহকারী কমিশনার(ভুমি)কে সরজমিনে তদন্তপূর্বক মতামতসহ রির্পোট পাঠানোর নির্দেশ প্রদান করলে এসিল্যান্ড রামু সরজমিনে তদন্ত করে দখল বলবৎ ও দখলীয় জায়গায় টিনের ঘর বিদ্যমান আছে মর্মে ভুক্তভোগী আল মামুন সিদ্দিকী বাহাদুরের পক্ষে মতামত ও রিপোর্ট প্রদান করেন।
এদিকে বিবাদীরা আক্রোশ ও ক্ষোভের বশিভুত হয়ে প্রভাব খাটিয়ে উক্ত জায়গা অবৈধভাবে দখলের মোহে উম্মাদ হয়ে নানা হুমকি ধমকি প্রদান করে যাচ্ছে।
পরবর্তীতে উক্ত বিষয় নিয়ে স্থানীয় সাংসদ সাইমুম সরওয়ার কমলের মধ্যস্থতায় উভয় পক্ষকে নিয়ে একটি বৈঠকের সিদ্ধান্ত হয়। এদিকে সাংসদ কমলের কাছে বিচারাধীন থাকা অবস্থায় উক্ত ভুমিদস্যুচক্রটি ১৪ সেপ্টেম্বর রাত তিনটায় ধারালো দা, লোহার রড় ও লাটিসোটা নিয়ে আল মামুন সিদ্দিকী বাহাদুরের দখলীয় জমিতে প্রবেশ করে জমিতে স্থীত খামার ঘর ভাংচুর করে ও ঘরে থাকা প্রায় ২ লক্ষ ৫০ হাজার টাকার মুল্যবান আসভাবপত্র লুট করে নিয়ে যায়।

আল মামুন সিদ্দিকী বাহাদুর জানান, ভুমিদস্যু আতিকুর রহমান সাংসদের প্রতিষ্ঠিত স্কুল সাইমুম সরওয়ার কমল উচ্চ বিদ্যালয়ে চাকরী করার সুবাদে মুলত মনস্তাত্ত্বিক প্রভাব বিস্তার করে অন্যের দখলীয় জমি জোর পূর্বক জবর দখলের অপচেষ্টায় লিপ্ত রয়েছে। যদিও সাংসদ কমল উক্ত বিষয়ে ওয়াকিবহাল নয়।
এব্যাপারে এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গের অভিমত,সাংসদের কাছে বিচারাধীন একটি জায়গায় এভাবে অবৈধ পন্থায় ভাংচুর ও লুটপাট এমপির দির্দেশনা অমান্য ও তার ভাবমুর্তি ক্ষুন্ন করার শামিল।
এব্যাপার ভুক্তভোগী জমির দখলীয় মালিক আল মামুন সিদ্দিকী বাহাদুর সাংসদ কমল ও প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছেন।