দক্ষিণ রুমালিয়ারছড়ায় বয়োবৃদ্ধের জমি দখল করে সীমানা প্রাচীর নির্মাণের চেষ্টা

বার্তা পরিবেশক
শহরের দক্ষিণ রুমালিয়ারছড়ায় মৌলানা বদিউল আলম নামের এক অসহায় বয়োবৃদ্ধের জমি দখল করে সীমানা প্রাচীর নির্মাণের চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে। এসময় দখলকারীরা ওই বয়োবৃদ্ধের ঘরের দরজা বন্ধ করে দিয়ে টিনের বেড়া ভেঙ্গে দেয়। এসময় কেটে নেয়া হয় বসতভিটার গাছ। গত ১০ জানুয়ারী (রবিবার) সকাল ৮টায় এ ঘটনা ঘটে।
অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, খুরুস্কুল রাস্তার মাথা সংলগ্ন দক্ষিণ রুমালিয়ার ছড়ার মরহুম ডা. গোলাম কাদেরের পুত্র মৌলানা বদিউল আলম (৮৫) দীর্ঘদিন যাবৎ নিজ বসতভিটা ও ৩টি দোকান নির্মাণ করে ভাড়া দিয়ে শান্তিপূর্ণভাবে বসবাস করে আসছেন। কিন্তু নানা সময় মৌলানা বদিউল আলমের জায়গা দখলের চেষ্টা চালিয়ে আসছেন একই এলাকার মৃত আবু তাহের মিয়ার পুত্র মো. রনি (২৫)। জায়গা দখলের উদ্দেশ্যে মৌলানা বদিউল আলমের বিরুদ্ধে বিভিন্ন ষড়ন্ত্রের ফাঁদ পাতে মো. রনি। যার অংশ হিসেবে রনির নেতৃত্বে গত রবিবার ৬/৭ জন সন্ত্রাসী মৌলানা বদিউল আলমের ঘরের দরজা বন্ধ করে দিয়ে ভেঙ্গে দেয় টিনের বেড়া। এসময় বসতবাড়ির গাছ কেটে মৌলানা বদিউল আলমের জমি দখল করে সীমানার উপর দেওয়াল নির্মাণের চেষ্টা করে। পরে খবর পেয়ে মৌলানা বদিউল আলম তার ছেলেকে নিয়ে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে সীমানা দেওয়াল নির্মাণের বাধা দিলে সন্ত্রাসীরা দা, ছুরিসহ ধারালো অস্ত্র দিয়ে হত্যার উদ্দেশ্যে তেড়ে আসে। বিষয়টি মৌলানা বদিউল আলম গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও স্থানীয় কাউন্সিলরকে জানালে তারা আইনের আশ্রয় নিতে পরামর্শ দেন। পরে মৌলানা বদিউল আলম নিজ বসত ভিটায় জোরপূর্বক দেওয়াল নির্মাণ বন্ধ ও সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নিতে সদর মডেল থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগের প্রেক্ষিতে গতকাল ১১ জানুয়ারী (সোমবার) সদর মডেল থানার একদল পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে মৌলানা বদিউল আলমের বসতভিটায় সীমানা দেওয়াল নির্মাণ কাজ বন্ধ করে দেন। এসময় মো. রনিকে বয়োবৃদ্ধ মৌলানা বদিউল আলমের সীমানায় দেয়াল নির্মাণ না করতে সতর্ক করা হয়। সেই সাথে পুনরায় এমন ঘটনা সংঘঠিত হলে জড়িতদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান সদর থানার ওসি শেখ মুনীর উল গীয়াস।