জমজে জমজে বিরল বিয়ে

অনলাইন ডেস্কঃ

নিখিল লাল কর্মকারের ঘর আলোকিত করে কয়েক মিনিটের ব্যবধানে জন্ম নিয়েছিলেন সজল কর্মকার ও কাজল কর্মকার। বেড়ে উঠেন একসঙ্গেই। বিয়ের পিড়িতেও একসঙ্গে বসলেন; সেটা অবশ্য হতেই পারে। কিন্তু মজার বিষয় হচ্ছে- দুই ভাই যাদের বিয়ে করছেন তারাও দুই বোন, জন্ম নিয়েছিলেন একসঙ্গেই। অর্থাৎ বরিশালের জমজ বোনের সঙ্গে গাঁটছড়া বেঁধেছেন পিরোজপুরের জমজ ভাই। সোমবার রাতে হওয়া অন্যরকম ওই বিয়ের আয়োজন যেন বিশাল উৎসবে পরিণত হয়েছিল। কেউ দাওয়াত পেয়ে আবার কেউ দাওয়াত না পেয়েও ছুটে আসেন জমজ দম্পতিকে একনজর দেখতে।

জানা যায়, বরিশাল সরকারি মহিলা কলেজের অনার্স প্রথম বর্ষে পড়েন বরিশাল নগরীর নাজির মহল্লা এলাকার স্বপন কর্মকারের জমজ দুই মেয়ে সোনালী কর্মকার সোনা ও রুপালী কর্মকার রুপা। এর মধ্যে সোনা কিছু সময়ের বড় এবং রুপা ছোট। অপরদিকে পিরোজপুরের স্বরুপকাঠি উপজেলার ইন্দেরহাটের মৃত নিখিল লাল কর্মকারের ছেলে সজল কর্মকার ও কাজল কর্মকার দুজনই স্বর্ণের দোকানী। দুই মাস আগে পারিবারিকভাবে পাকাপাকি হয় আট হাতকে এক করার।

পূর্বনির্ধারিত তারিখ অনুযায়ী গতকাল সোমবার ছিল বিয়ের দিনক্ষণ। লগ্নমতে নাজির মহল্লায় রাত ১১টায় শুরু হয় আনুষ্ঠানিকতা। এতে স্থানীয় কাউন্সিলর ও বরিশাল সিটি করপোরেশনের প্যানেল মেয়র গাজী নঈমুল হোসেন লিটুসহ অনেক গণ্যমান্য ব্যক্তিই ছিলেন আমন্ত্রিত অতিথি। খবর পেয়ে বিয়ের অনুষ্ঠানে ভীড় জমায় বিভিন্ন এলাকার লোকজনও।

নগরীর ভাটিখানা এলাকার বাসিন্দা রতন ঢালী বলেন, ‘দাওয়াত নেই তবুও উৎসুক হয়ে এসেছি জমজ বিয়েটি দেখতে। ভালোই লেগেছে। আলাদাভাবে দুই বোন এবং দুই ভাইয়ের বিয়ে হলো, তাও একই অনুষ্ঠানের মাধ্যমে।’

সৌরভ দাস নামে নাজির মহল্লা এলাকার এক বাসিন্দা বলেন, ‘অনেক লোকই আসেন বিয়ে দেখতে। কেউ দাওয়াত পেয়ে আবার কেউ দাওয়াত না পেয়েই। এরকম বিয়ে তো আর সচরাচর দেখা যায় না।’

জমজ বোনের স্বজন রাজীব কর্মকার বলেন, ‘জমজের সঙ্গে জমজের বিয়ের বিষয়টা এবোরেই আনকমন। তাই এই বিয়েতে অংশগ্রহণ করতে আত্মীয় হিসেবে আমিও ছুটে এসেছি।’

বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা দেখতে আসা এবং জমজ দুই ভাই-বোনের স্বজনরা নবদম্পতিদের উজ্জল ভবিষৎ কামনা করে তাদের আর্শিবাদ করেন।

নগরীর প্যানেল মেয়র গাজী নঈমুল হোসেন লিটু বলেন, ‘দুই জমজ ভাই-বোনের বিয়ের অনুষ্ঠানে আমিও আমন্ত্রিত ছিলাম। অনুষ্ঠান জমকালো ও সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে স্থানীয়ভাবে সব ধরনের সহযোগীতাই করা হয়েছে।’

দেশে এর আগে ময়মনসিংহের তারাকান্দাতেও জমজ দুই ভাইয়ের সঙ্গে জমজ দুই বোনের এমন বিয়ে হয়েছিল। গেল বছরের এই ফেব্রুয়ারি মাসেই উপজেলার কাকনী গ্রামের রেজাউল করিম হাদী সরকারের জমজ ছেলে লিমন সরকার ও রিপন সরকারের সঙ্গে ফুলপুর উপজেলার হাবিবুর রহমানের জমজ মেয়ে তৃণা আক্তার ও তুষা আক্তারের বিয়ে হয়