জেলে গেলেও তারেক রহমানকে দেশে ফেরার তাগিদ

ডিবিসি নিউজঃ
জেলে যেতে হলেও বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানকে দেশে ফেরার তাগিদ নেতাদের। তারা বলছেন, গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের সংগ্রামের জন্যই তাকে দরকার।

জেলে যাওয়ার ভয় না করে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের দেশে ফেরা উচিত বলে মনে করেন শীর্ষ থেকে বিএনপির তৃণমূলের অনেক নেতা। বলছেন, গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের সংগ্রামের জন্যই তাকে দরকার। আবার কেউ কেউ বলছেন, দলের শীর্ষ নেতার ফিরে আসার মতো নিরাপদ পরিস্থিতি দেশে এখনো তৈরি হয়নি।  আর তা নিশ্চিত করতে হবে দলের নেতাকর্মীদেরই।

সম্প্রতি দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের দেশে ফেরার বিষয়ে ইঙ্গিত ছিল বিএনপি মহাসচিবের বক্তব্যে। যা নিয়ে দলের ভেতরেও চলছে আলোচনা।

বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ব্যারিস্টার মোহাম্মদ শাহজাহান ওমর বীরউত্তম বলেন, একটা বড় দলের মহাসচিব হিসেবে উনাকে অনেক কথাই বলতে হয়। হয়ত গুঞ্জন উনি শুনেছেন, আপনারাও শুনেছেন। সে যদি দেশে আসেও তার জন্য সে রকম পরিবেশ সৃষ্টি করতে হবে। আমরা যদি মিটিং না করি, দাবি না তুলি, রাস্তায় না নামি তাহলে উনি কোন ভরসায় দেশে আসবে।

বিএনপির আরেক ভাইস চেয়ারম্যান মেজর (অব.) হাফিজউদ্দিন আহমেদ বীর বিক্রম বলেন, ক্ষেত্র তৈরি হলে উনি অবশ্যই সারম্বরভাবেই দেশে আসবেন। এখন সেই ক্ষেত্র প্রস্তুত তারই করতে হবে। রাজনৈতিক নেতা হিসেবে কিছুটা ঝুঁকি তার নিতেই হবে। তারেক রহমান জিয়াউর রহমান এবং বেগম খালেদা জিয়ার পুত্র। সে দেশে আসলেই যে তার বিরাট কোন ক্ষতি করে ফেলবে এমনটা আমার মনে হয় না। খুব বেশি হলে জেল হতে পারে।

নেতারা বলছেন, গুঞ্জনকে সত্যি করার চেষ্টাও করছেন তারা।

বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য রবিউল আলম রবি বলেন, গুঞ্জন আছে যেটা মহাসচিব বলেছেন সেটা সঠিক। বাংলার জনগণ এখন এই সংকট থেকে মুক্ত হওয়ার জন্য একমাত্র আশ্রয়স্থল মনে করছে তারক রহমানকে। যার ফলে মানুষের চাপ বাড়ছে বিএনপির প্রতি এবং তারেক রহমানের দেশে ফেরার প্রতি।

ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির সহ সভাপতি এ কে এম মোয়াজ্জেম হোসেন বলেন, আগামী দিনের নেতা যার প্রতীক্ষায় বাংলাদেশ সেই তারেক রহমান বীরের বেশেই আসবে। তিনি এসে সংগঠনের হাল ধরবে এবং আন্দোলনের মাধ্যমে এই সরকারের পতন হবে।

তৃণমূলের নেতাদের প্রত্যাশা, দলের মহাসচিব যাকে গুঞ্জন বলেছেন শিগগিরই তা সত্য হবে।

তবে খালেদা জিয়ার উত্তরসূরি হিসেবে তারেক নয় বরং তার কন্যা জাইমা রহমানের দেশে আসা উচিত বলে মনে করেন রাজনীতি বিশ্লেষক ডাক্তার জাফরুল্লাহ চৌধুরী। তিনি বলেন, আমার মতে তারেক রহমান দেশে এসে অকারণে আরেকবার পিটানি খাওয়ার কোন দরকার নেই। আমি বুঝিনা তারা জাইমাকে নেতৃত্বে আনতে চায় না কেনো।