বিয়ের আগে সব পুরুষই সিংহ: ধোনি

অনলাইন ডেস্কঃ

২২ গজে মহেন্দ্র সিং ধোনির সাফল্য কারও অজানা নয়। সাংসারিক জীবনেও সুখী তিনি। ইতিমধ্যে এর অহরহ ইঙ্গিত মিলেছে। আরেকবার তা সামনে আনলেন ভারতীয় ক্যাপ্টেনকুল।

২০১০ সালে দীর্ঘদিনের প্রেমিকা সাক্ষীকে বিয়ে করেন ধোনি। সম্প্রতি চেন্নাইয়ে এক অনুষ্ঠানে বৈবাহিক জীবন নিয়ে নানা কথা বলেন তিনি। এ নিয়ে তার ব্যাখ্যার ধরনে হাসিতে ফেটে পড়েন দর্শকরা।

ধোনি মনে করেন, তিনি একজন ভালো স্বামী। কারণ তার স্ত্রীকে পছন্দমতো সব করতে দেন।

সর্বকালের সেরা ভারতীয় অধিনায়ক বলেন, ‘সব পুরুষই বিয়ের আগে সিংহ থাকে। কিন্তু পরে মানসিক পরিবর্তন আসে। বিয়ের মর্মার্থ বোঝা যায় ৫৫ বছর বয়স পেরিয়ে যাওয়ার পর। আমি আমার স্ত্রীকে সব কিছু করতে দিই। সে যা করতে চায়, তাতে কোনো বাধা দিই না। আমার তরফ থেকে তার ওপর কোনো বিধিনিষেধ নেই। কারণ সে সুখে থাকলে আমি সুখে থাকি।

ইদানীং ভারতের হয়ে খেলছেন না ধোনি। ২০১৯ বিশ্বকাপের সেমিফাইনালের পর টিম ইন্ডিয়ার জার্সিতে আর দেখা যায়নি তাকে। ফলে তার অবসর নিয়ে গুঞ্জন ডালপালা মেলে। তবে ফের তাকে জাতীয় দলে দেখা যেতে পারে।

গেল মঙ্গলবার ভারতের হেড কোচ রবি শাস্ত্রী তেমনই ইঙ্গিত দিয়েছেন। আসন্ন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ধোনির খেলার ইঙ্গিত দিয়েছেন তিনি। ২০২০ সালের নভেম্বরে অস্ট্রেলিয়ায় হবে ক্রিকেটের সংক্ষিপ্ত সংস্করণের বৈশ্বিক লড়াই।