ভয়েস কল ছাড়া সব সেবা বন্ধ হচ্ছে রোহিঙ্গা ক্যাম্পে

কক্সবাজার খবর ডেস্কঃ

থ্রিজি ও ফোরজি মোবাইল ডেটা সেবা বন্ধ করার পর কক্সবাজারের টেকনাফ ও উখিয়া এলাকার রোহিঙ্গা ক্যাম্পগুলোতে এবার আরো কড়াকড়ি অবস্থান নিয়েছে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন(বিটিআরসি)।

নতুন নির্দেশনায় রোহিঙ্গা ক্যাম্প এলাকায় টুুুজি ইন্টারনেট এবং এসএমএসসহ অন্যান্য সেবাও বন্ধ হয়ে যাবে। কমিশন সম্প্রতি ওই ক্যাম্প এলাকায় ভয়েস কল ছাড়া আর কোনো সেবা চালু না রাখার নির্দেশ দেয়। এতে করে টুজি ইন্টারনেট এবং এসএমএসসহ অন্যান্য সেবাও বন্ধ হয়ে যাবে।

এর আগে ১ সেপ্টেম্বর বিটিআরসি রোহিঙ্গা এলাকায় দিনে ১৩ ঘন্টা থ্রিজি ও ফোরজি বন্ধ রাখে। পরদিন এই মেয়াদ বাড়িয়ে পাকাপাকিভাবে থ্রিজি ও ফোরজি বন্ধ করে দেওয়া হয়।

সেপ্টেম্বরের ওই ঘটনার পর একটি টেকনিক্যাল কমিটি গঠন করে বিটিআরসি। ওই কমিটি কক্সবাজার এলাকার রোহিঙ্গা ক্যাম্পগুলো ঘুরে যে প্রতিবেদন দেয়, সেখানে বলা হয় এখন আনুমানিক তিন লাখ মোবাইল সংযোগ চালু রয়েছে ওখানে।

বিটিআরসি’র নতুন নির্দেশনায় এই তিন লাখ সিম যেসব জাতীয় পরিচয়পত্র দিয়ে নিবন্ধন করা হয়েছে সেগুলো চেয়েছে বিটিআরসি। একই সঙ্গে অপারেটরদের কাছে মোবাইল ফোন ব্যবহারের এমএসআইএসডিএনের তথ্যও চায় বিটিআরসি।

২০১৭ সালের আগস্ট থেকে বাংলাদেশে প্রায় ১০ লাখ রোহিঙ্গা এসেছে এবং তাদের অধিকাংশের হাতেই মোবাইল ফোন রয়েছে। প্রথমে ধারণা করা হচ্ছিল এদের প্রায় সবাই যেহেতু মোবাইল ফোন ব্যবহার করছে সে কারণে সিমের সংখ্যা সাত-আট লাখ হতে পারে।

এই সিমগুলো দিয়ে রোহিঙ্গারা মিয়ানমানে যোগাযোগসহ বিভিন্ন দেশে যোগাযোগ করতো। একই সঙ্গে তারা নানা অপরাধের সঙ্গে জড়িয়ে পড়ে যেখানেও তারা যোগাযোগের নানা অ্যাপ ব্যবহার করছিল।

এর প্রেক্ষিতেই সেপ্টেম্বরে থ্রিজি ও ফোরজি সেবা বন্ধের সিদ্ধান্ত হয়। তখন রোহিঙ্গাদের কাছে আর কোনো সিম বিক্রি না করতেও নির্দেশনা দেওয়া হয়।