পেটে ও বাড়ি থেকে ৪৪ হাজার ইয়াবা উদ্ধার নারীসহ আটক-২

আব্দুল্লাহ মনির,টেকনাফ

টেকনাফে বিজিবি সদস্যরা পৃথক ২টি অভিযান পরিচালনা ১ কোটি ৩২ লক্ষ টাকা মুল্যমানের ৪৪ হাজার ইয়াবা উদ্ধার করেছে। এসময় ইয়াবা গুলোর সাথে জড়িত থাকার অপরাধে দুই মাদক পাচারকারীকে আটক করতে সক্ষম হয়েছে। এর মধ্যে একজন নারী রয়েছে। তথ্য সুত্রে জানা যায়, বিজিবি গোপন সংবাদে জানতে পারে হোয়াইক্ষ্যং ইউনিয়ন পশ্চিম সাতঘরিয়া পাড়া এলাকার মৃত হোসন আলীর পুত্র মোঃ আব্দুল মজিদের বসবাড়ীতে বিপুল সংখ্যক ইয়াবা মওজুদ রয়েছে। এরপর উক্ত সংবাদের তথ্য অনুযায়ী সোমবার ভোর রাতের দিকে হোয়াইক্ষ্যং বিওপিতে দায়িত্বরত বিজিবি সদস্যদের একটি টহল দল ঐ বাড়ীতে অভিযান পরিচালনা করে বাড়ীর পিছনে পলিথিনের স্তুপে অভিনব কায়দায় লুকিয়ে রাখা ১ কোটি,২০ লক্ষ টাকা মুল্যমানের ৪০ হাজার ইয়াবা উদ্ধার করা হয়। এসময় ইয়াবা গুলোর মালিক আব্দুল মজিদ(৩৯)কে আটক করে বিজিবি। অপর দিকে রাতে টেকনাফ হ্নীলা ইউনিয়নের কর্তব্যরত বিজিবির একটি টহল দল গোপন সংবাদের রাতে হ্নীলা মৌলভী বাজার নতুন ব্রীজ এলাকা থেকে এক নারীকে আটক করে এরপর তার দেহ তল্লাশী করার একপর্যায়ে সে স্বীকার করে তার পেটের ভিতর ইয়াবা রয়েছে। এরপর আটক মহিলার পাকস্থলী থেকে ৩ হাজার,৯শত,৫০পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয় যার অনুমানিক মূল্য ১১ লক্ষ,৮৫ হাজার টাকা মুল্যের
আটক মহিলা হচ্ছে,ফরিদ পুর নগরকান্দা এলাকার মনির প্রকাশ লিটনের স্ত্রী আছমা বেগম(২৩)।
এই অভিযান গুলোর সত্যতা নিশ্চিত করে ২ সোমবার দুপুর ১টার দিকে স্থানীয় সংবাদ কর্মিদের কাছে টেকনাফ ২ বিজিবি’র অধিনায়ক লেঃ কর্ণেল মোঃ ফয়সল হাসান খান সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে অভিযানের বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরেন। সম্মেলনে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তরে বিজিবি অধিনায়ক বলেন মাদক পাচার প্রতিরোধে সীমান্ত প্রহরী বিজিবি সৈনিকরা সব সময় সজাগ রয়েছে। পাশাপাশি যে সমস্ত অপরাধীরা এখনো মাদক কারবারে জড়িত তাদের আইনের আওয়াতাই নিয়ে আসতে বিজিবির মাদক বিরোধী এই অভিযান অব্যহত থাকবে।
তিনি আরো জানান স্থানীয় তথ্য দিয়ে সহযোগীতা করলে আমাদের অভিযানে আরো সফলতা আসবে