রামুতে ইউনিয়ন পরিষদের উদ্যোক্তাকে পিটিয়ে সর্বস্ব ছিনিয়ে নেয়ার অভিযোগ

রামু প্রতিনিধি:
রামুতে ইউনিয়ন পরিষদের উদ্যোক্তাকে পিটিয়ে সর্বস্ব ছিনিয়ে নেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। মারধরে আহত রাজারকুল ইউনিয়ন পরিষদের তথ্য সেবা কেন্দ্রের উদ্যোক্ত বিপন বড়–য়া কক্সবাজার সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধিন রয়েছেন। রবিবার, ১ জানুয়ারি সন্ধ্যা সাতটায় রামুর ফতেখাঁরকুল ইউনিয়নের অফিসেরচর ও শিকলঘাট এলাকায় রামু-মরিচ্যা সড়কে এ ঘটনা ঘটে।
হামলার শিকার বিপন বড়–য়া জানান- ছিনতাইকারিচক্র পরিকল্পিতভাবে তাকে মারধরের পর লক্ষাধিক টাকা, ল্যাপটপ নিয়ে গেছে। তিনি আরো জানান- ওইদিন তিনি রাজারকুল ইউনিয়ন পরিষদের কাজ শেষে টমটম গাড়ি যোগে বাড়ি ফিরছিলেন। পথিমধ্যে আতিক্কাবিবির ঘাট এলাকায় পৌঁছলে উৎপেতে থাকা ১০/১২ জনের একটি দল তাকে গতিরোধ মারধর শুরু করে। একপর্যায়ে হামলাকারিরা তার সর্বস্ব লুট করে এবং তাকে হত্যার উদ্দেশ্যে টমটম গাড়িযোগে শিকলঘাট হয়ে রাজারকুল নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা চালায়। এসময় শিকলঘাট এলাকার তার আর্তচিৎকার শুনে পথচারিরা এগিয়ে এসে হামলাকারিদের গণপিটুনি দেয়। এসময় গণপিটুনি খেয়ে পালিয়ে যান তারা।
আহত বিপন আরো জানান- রাজারকুল ইউনিয়নের ৮ নং ওয়ার্ডের পূর্ব রাজারকুল তেতুল গাছতলা এলাকার মোতাহের মিয়ার ছেলে আজিজ মিয়া, শহীদুল্লাহ, নুরুল ইসলামের ছেলে একেরাম মিয়া, একই এলাকার এনাম মিয়া, শহীদুল্লাহ, রায়হান সহ ১০/১২ জনের একটি চক্র এ হামলা ও লুটপাট চালিয়েছে। এ ব্যাপারে মামলার প্রক্রিয়া চলছে বলেও জানান তিনি।
রাজারকুল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মুফিজুর রহমান জানিয়েছেন- এ ঘটনায় জড়িতদের শিকলঘাট এলাকায় গণপিটুনি দেয়া হয়েছে। এরপরও উভয় পক্ষকে নিয়ে বিষয়টি সমাধানের উদ্যোগ নেয়া হবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •