রামুতে অফিসে ডেকে এনে মারধর করে ঋণ আদায়ের অভিযোগ

 

শওকত ইসলাম,রামু
প্রধানমন্ত্রীর অগ্রাধিকারপ্রাপ্ত এই প্রকল্পের নাম ‘আমার বাড়ি আমার খামার’। সরকারিভাবে পরিচালিত হওয়াতে গ্রামে গ্রামে গড়ে উঠে এই সমিতি।

যে স্বপ্ন নিয়ে দারিদ্র্যকে জয় করার লক্ষ্যে যাত্রা শুরু হয়েছিল ‘একটি বাড়ি একটি খামার’ ও পল্লী সঞ্চয় ব্যাংক প্রকল্পের সেই স্বপ্নের বাস্তবটা বাস্তবায়ন হচ্ছেনা রামু শাখায়।

রামুতে যোগদান করার পরে দায়িত্ব অবহেলা অনিয়ম সমিতির সদস্যদের অশুভ আচরণ ও নিজ অফিসে ডেকে মারধর এবং দুর্নীতির অভিযোগ রয়েছে এ উপজেলা শাখা ব্যবস্থাপক মো: আমিনুল হকের বিরুদ্ধে। ফলে সুবিধাভোগীরা বঞ্চিত আর সরকারের উন্নয়ন কর্মকান্ড থেমে যাওয়াসহ প্রকল্পের উদ্দেশ্য ভেস্তে যেতে বসেছে।

ভুক্তভোগী মো: সোহেল জানান, নালা পাড়া-১ এবাএখা গ্রাম উন্নয়ন সমিতির সদস্য আমি আমার পরিবারিক উন্নয়নের জন্য পল্লী সঞ্চয় ব্যাংক, রামু শাখা হইতে বিগত ১বছর পূর্বে বিশ হাজার টাকা ঋণ গ্রহণ করি। পারিবারিক অসুবিধার কারণে ঋণ পরিশোধ করতে পারিনি। গত ১৯ ডিসেম্বর সকাল এগারোটার দিকে রামু পল্লী সঞ্চয় ব্যাংকের শাখা ব্যবস্থাপক আমাকে তিনজন অফিসের লোক দ্বারা কর্মস্থল থেকে রামু পল্লী সঞ্চয় ব্যাংকের অফিসে এনে অকথ্য ভাষায় গালি গালাজ কিল, ঘুষি, চড়, থাপ্পড় মেরে জখম করে এবং আটকে রাখে। আমার পরিবারের লোকজনদের খবর দিয়ে ডেকে আনে। এরপর আমার স্ত্রী এবং মা কে অকথ্য ভাষায় গালি গালাজ করিয়া নাজেহাল করে ও তাৎক্ষণিক টাকা দিতে বাধ্য করে। তখন উপায় না পেয়ে আমার স্ত্রী বাড়ীতে গিয়া লোকজন হইতে ধার করে ৮,৫০০ টাকা এনে জমা দিয়া বাকি টাকা দেওয়ার প্রতিশ্রুতি/মুচলেকা দিয়ে আমাকে ছাড়িয়ে নেয়।

ভোক্তভোগী মো:জসিম,ভূতপাড়া সমিতির সদস্য ,মো:হারুন,ঝরণাঘোনা সমিতিসদস্য , জাহেরা আকতার পশ্চিম ফতেখাঁকুল সমিতি সদস্য সাধন সুশিল কলঘর বাজার সমিতি সদস্য সহ অনেক সদস্যেরা মো : আমিনুল হকের দূর্ব্যবহার অসৎআচরণ ও গালিগালাজের শিকার হয়েছেন।এমতবস্থায় নানা অনিয়ম ও সমিতির সদস্য কে মারধরের ঘটনায় জড়িত রামু শাখা ব্যবস্থাপক মো : আমিনুল হকের শাস্তিমূলক বদলি ও বিভাগীয় মামলার দাবি জানিয়েছেন ভোক্তভোগীরা।

অনিয়ম আর দুর্নীতি ও মারধরের অভিযোগের ব্যাপারে পল্লী সঞ্চয় ব্যাংক রামু শাখার ব্যবস্থাপক মো: আমিনুল হক বলেন, আমি অফিসে যোগদানের পূর্বে অফিসে যে সকল সমস্যা ছিল সব সমস্যার সমাধান করা হয়েছে।
একটি বাড়ি একটি খামার ও পল্লী সঞ্চয় ব্যাংক রামু শাখায় গঠিত অনিয়মের অভিযোগ ও মারধরের ঘটনার সত্যতার ব্যাপারে জানতে চাইলে মো: আমিনুল হক এড়িয়ে যান।

রামু উপজেলা নির্বাহী অফিসার আশরাফুল হাসান
জানান, বিভিন্ন মাধমে অভিযোগটি শুনেছি শাখা ব্যবস্থাপক আমিনুল হকের অনিয়ম ও সেবা গ্রহিতাকে মারধরের বিষয়ে তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এদিকে এ বিষয়ে জানতে ‘একটি বাড়ি একটি খামার’ এর জেলা ব্যবস্থাপক উবাঞেই এর মোবাইলে একাধিকবার ফোন দিলেও তিনি ফোন রিসিভ না করায় বক্তব্য যানা যায়নি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •